অনেক নারী শিক্ষার্থী ঝরে যাচ্ছে উচ্চমাধ্যমিকে এসে

অনেক নারী শিক্ষার্থী ঝরে যাচ্ছে উচ্চমাধ্যমিকে এসে

সবুজবার্তা ডেস্ক : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বললেন দেশে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত নারী শিক্ষার্থীরা এগিয়ে থাকলেও উচ্চমাধ্যমিকে এসে তারা অনেকেই ঝরে যাচ্ছে  । তিনি জানান, বর্তমানে মাধ্যমিকে মোট শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৫৩ শতাংশ, ছাত্র ৪৭ শতাংশ। কিন্তু উচ্চমাধ্যমিকে এসে ছাত্রীর সংখ্যা হয়ে যাচ্ছে ৪৭ শতাংশ, ছাত্রের সংখ্যা ৫৩ শতাংশ।

জাতীয় সংসদে গতকাল সোমবার সরকারি দলের নিজাম উদ্দিন হাজারীর প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী এসব তথ্য জানান। মন্ত্রী জানান, মাধ্যমিক স্তরে মোট শিক্ষার্থী ৮৫ লাখ ১ হাজার ৪৪২ জন। এর মধ্যে ছাত্রী ৪৫ লাখ ১৯ হাজার ৯১ এবং ছাত্র ৩৯ লাখ ৮২ হাজার ৩৫১ জন। অপরদিকে উচ্চমাধ্যমিক স্তরে মোট শিক্ষার্থী ৩১ লাখ ৯৪ হাজার ৭৮৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১৬ লাখ ৯৪ হাজার ২৬৭ এবং ছাত্রী ১৫ লাখ ৫২০ জন। তবে উচ্চশিক্ষায় মেয়েদের অংশ নেওয়ার হার অতীতের চেয়ে বাড়ছে।
নুরুল ইসলাম নাহিদ আরও জানান, নারী ও পুরুষের শিক্ষার হারে সমতা আনতে সরকার শিক্ষা-সহায়তা ট্রাস্ট তহবিলে এক হাজার কোটি টাকা দিয়েছে। এই তহবিল থেকে স্নাতক পর্যায়ের ৩০ শতাংশ দরিদ্র ছাত্রী এবং ১০ শতাংশ ছাত্রকে উপবৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।

গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের অধিবেশন শুরুর পর প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।
জাতীয় পার্টির নূর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষকের দ্বারা যৌন নির্যাতনের ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত। এ ধরনের অভিযোগ পাওয়া গেলে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ওয়াসিকা আয়শা খানের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, সারা দেশে জরাজীর্ণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১০ হাজার ৯৬০টি। এর মধ্যে ১ হাজার ৯৭৩টি প্রতিষ্ঠান মেরামতের জন্য চলতি বাজেটে ৩৭ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

আরো খবর: