সর্বশেষ:

বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ উপলক্ষে কুষ্টিয়া পৌরসভায় র‌্যালী ও আলোচনা সভা

বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ উপলক্ষে কুষ্টিয়া পৌরসভায় র‌্যালী ও আলোচনা সভা

মাহমুদ শুভ্র // বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ উপলক্ষে কুষ্টিয়া পৌরসভায়  র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুষ্টিয়া পৌরসভায় গতকাল সকালে  বাসত্মবায়নাধীন নগর অংশীদারিত্বের মাধ্যমে দারিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্পের সহযোগিতায় এই ‌‌র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। পৌর বিজয় উল্লাস থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কুষ্টিয়া পৌরসভায় শেষ হয়। ব্যানার, ফেসটুন, প্লেকার্ড সহ বাদ্যযন্ত্র নিয়ে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার শত শত মানুষ র‌্যালীতে অংশগ্রহন করেন।

র‌্যালী শেষে কুষ্টিয়া পৌরসভার আলহাজ্ব মজিবর রহমান মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় কুষ্টিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ আলহাজ্ব মতিয়ার রহমান মজনুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর আনিছ কোরাইশী। এছাড়া বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া পৌরসভার সচিব কামাল উদ্দিন, সহকারী প্রকৌশলী ওয়াহিদুর রহমান, নগর অংশীদারিত্বের মাধ্যমে দারিদ্র হ্রাসকরণ প্রকল্পের টাউন ম্যানেজার আনিসুর রহমান, নিউট্রিশন এক্সপাট ফিরোজুল ইসলাম, আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ার সার্ভিসেস ডেলিভারী প্রকল্পের মফিজ উদ্দিন ও আলেয়া খাতুন। সভায় উপস্থিত ছিলেন সিডিসির নেতৃবৃন্দ, সদস্য, পৌরসভার এবং প্রকল্পের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। আলোচনা সভাটি পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া পৌরসভার বসিত্ম উন্নয়ন কর্মকর্তা এ. কে. এম. মঞ্জুরুল ইসলাম।

আলোচনা সভার পূর্বে মাতৃদুগ্ধর উপরে একটি প্রামান্য চলচিত্র প্রদর্শন করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, জন্মের পর শাল দুধ শিশুর জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। শিশুকে সুস্থ রাখতে হলে মায়ের দুধের বিকল্প নাই। মায়ের দুধে শিশুদের রোগ প্রতিরোধ করে। রোগব্যাধী দূরে রাখতে শিশুকে পান করাতে হবে শাল দুধ। উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, একটি জরিপে দেখা যায় যে, মাত্র ৬৫ ভাগ মা মাতৃদুগ্ধ পান করান। আপনারা সকলেই বাড়ির পাশের মায়েদের মায়ের দুধের গুণাগুন সম্পর্কে বলবেন। এইভাবে আমরা সকলে মিলে যদি মাতৃদুগ্ধ পান সম্পর্কে সমাজকে সচেতন করে গড়ে তুলতে পারি। তাহলে ভবিষ্যতে এই ৬৫ ভাগকে শত ভাগে আনতে পারবো।

আরো খবর: