বুদ্ধিপ্রতীবন্ধী আসাদ অভাবের তাড়নায় কারখানার শ্রমিক

বুদ্ধিপ্রতীবন্ধী আসাদ অভাবের তাড়নায় কারখানার শ্রমিক

সোহানুর রহমান (সোহান) জামালপুর: জামালপুরের সরিষাবাড়ী বুদ্ধিপ্রতীবন্ধী আসাদ তার শরীরে অন্যান্য অঙ্গ টিক থাকলে ও জন্মগত ভাবে বুদ্ধি প্রতীবন্ধী ।  জানা যায়, উপজেলার সামর্থবাড়ীর দিন মজুর মোঃ আব্দুল রশিদ এর দুই ছেলের মধ্যে একজন আসাদুল । জন্মগত ভাবে একজন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ।  একজন সুস্থ শরীরে জন্ম নিলেও আসাদুল জন্মগত ভাবে প্রতিবন্ধী হওয়ায় তাদের সংসারে প্রতি নিয়ত একটি দুশ্চিন্তাা লেগেই থাকে।

প্রতিবন্ধী আসাদুল যতই বড় হতে থাকে সে ততই সংগ্রামী হয়ে ওঠে । তাই সে পড়ালেখা করতে উদ্দ্যেগী হয়। তার বুদ্ধি না থাকার কারনে কোন কিছু মনে রাখতে পারেনা । তার মা আসমা বেগম সারাক্ষন তাকে সেবা যতœ করে এতটুকু পর্যন্ত নিয়ে এসেছে। জীবন যুদ্ধে সংগ্রামী হয়ে ওঠা জন্মগত প্রতিবন্ধী আসাদুল পড়ালেখার ইচ্ছা পোষণ করলে তার পরিবার তাকে সরিষাবাড়ী বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় ,সুইড বাংলাদেশ এ ভর্তি করিয়ে দেন। ক্লাস চলাকালিন তাকে সারাক্ষন দেখাশোনা করার জন্য মাকে উপস্থিত থাকতে হত। আসাদুল বর্তমানে উক্ত স্কুলের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র।

প্রতিবন্ধী আসাদুল সাথে এ প্রতিবেদক কথা বললে সে খুব খুশি হয়ে বলেন, স্যার আমি একজন জন্মগত প্রতিবন্ধী।আমার ভাই রিয়াজ উদ্দীন স্কুলে ৮ম শ্রেণীতে পড়ে। শুধু পড়ায় শেষ না ?কারখানায় কাজ করে সংসার চালাতে হয় আসাদের। সরিষাবাড়ী আলহাজ জুট মিল’স এ ২ থেকে আড়াই বছর ধরে ছালা বানানোর ফিনিশিংএর কাজ করে। ১২ দিন কাজ করলে ২৪শ টাকা বেতন পায়। তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরিষাবাড়ী বুদ্ধি প্রতীবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনিসুর রহমান সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, আসাদুল একজন জন্মগত প্রতিবন্ধী হলে ও সে পড়া লেখার ব্যাপারে অত্যন্ত অগ্রহী। তার যথেষ্ঠ সদিচ্ছা রয়েছে। একজন প্রতিবন্ধী হিসাবে স্কুলের পক্ষ থেকে তাকে বিভিন্ন ভাবে সাহায্য সহযোগিতা দেওয়া হয়।

আরো খবর: