নিরবে চাপা পড়ে যায় আরও একটি স্বপ্ন

নিরবে চাপা পড়ে যায় আরও একটি স্বপ্ন

তনিমা রব তোড়া(১৬),কিশোরগঞ্জ: ইয়াসিন নামের ছেলেটি। বয়স ১৩ কি ১৪, তাকে প্রতিদিন পাড়ার সামনের  মুদির দোকানটিতে দেখা যায়। ইয়াসিন মুদির দোকানে কাজ করে।  সাধারণত এই বয়সের শ্রমজীবী শিশুরা যেমন চঞ্চল আর দুষ্ট প্রকৃতির হয় ইয়াসিন মোটেই তাদের দলের নয়। শান্ত আর ভদ্র সে ছেলেটি বুকের মধ্যে চেপে রেখেছে হাজারও কষ্ট। সারাদিন দোকানে থাকে আর দোকানের সব কাজ করে।

স্কুলে যাওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে সে বলে, ‘  আগে স্কুলে যাইতাম। এখন আর যাইতে পারি না। সারাদিন দোকানেই থাকন লাগে। ইচ্ছা আছিল পড়ালেখা করমু কিন্তুু বাবায় এইহানে পাঠায় দিসে ‘। বেতনের কথা জিজ্ঞেস করলে সে জানায়, যে টাকা বেতন পায় সেটা বাবা মায়ের কাছে পাঠিয়ে দেয় আর এখানে থাকা খাওয়া সব মালিকে দেয়।

দোকানে কাজ করে পড়াশুনা করা অসম্ভব তাই স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়েছে আগেই। ইয়াসিনের স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া করে চাকুরী করবে। কিন্তু দারিদ্রতার কাছে হার মেনে চাপা পড়ে গেল আরও এতটি ক্ষুদে  শিশুর স্বপ্ন।
এসবি-সুবিধা বঞ্চিত শিশু/৭ ডিসেম্বর,২০১৫/সাজিদ

আরো খবর: