আম গাছ গুলোতে মুকুলের মৌ মৌ গন্ধ

আম গাছ গুলোতে মুকুলের মৌ মৌ গন্ধ

সবুজ আহম্মেদ,পীরগঞ্জ(ঠাকুরগাঁও): ছয় ঋতুর বাংলাদেশে ‘ঋতুরাজ’ পাতাঝড়া বসন্ত। শীতের জড়তা কাটিয়ে কোকিলের সেই সুমধুর কুহুতানে মাতাল করতে আবারও ফিরে এলো বাংলার বুক চিরে মাতাল করা ঋতুরাজ বসন্ত। রঙিন বনে ফুলের সমারোহে প্রকৃতি যেমন সেজেছে বর্ণিল সাজে, তেমনি নতুন সাজে যেন সেজেছে পীরগঞ্জ সহ সারাদেশে প্রায় আম বাগানগুলোতে। এবার আমের মুকুলে ভরপুর আর ঘ্রাণে সর্বত্র জানান দিচ্ছে বসন্তের আগমনী বার্তাকে। শোভা ছড়াচ্ছে নিজস্ব মহিমায়। মুকুলে মুকুলে ভরে গেছে আমগাছ গুলোত। বড় ধরনের কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হলে এবং আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এবার সর্বত্রই আমের বাম্পার ফলন হবে।

আমচাষী ও বাগান মালিকরা বাগানে পরির্চচা নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন। অবশ্য গাছে মুকুল আশার আগে থেকেই গাছের পরির্চচা করে আসছেন তারা। যাতে করে গাছে মুকুল বা গুটি বাঁধার সময় কোন সমস্যার সৃষ্টি না হয়। ফজলি, খিড়সা, মোহনা, অন্যান্য জাতের আম চাষের উপযুক্ত হওয়ায় চাষীরা নিজ উদ্যোগে বাগানও করছেন । সুফলও পেয়েছেন অনেকেই । এদিকে পীরগঞ্জ,ঠাকুরগাঁওয়ের ভেলাতৈর গ্রাম এর আম চাষী রিপন জানান, বাগানের সব গাছে মুকুল আসলেও বাড়ির গাছগুলোতে তেমন মুকুল আসেনি।

কয়েকদিনের মধ্যেই হয়ত এসব গাছেও মুকুল আসার সম্ভাবনা আছে যদিও তা শেষের দিকে তবে আমি আম বাগান থেকে অনেক টাকা আয় করেছি। একই গ্রামের ওহেদুল ইসলাম মিলন জানান, তার পুকুরের চারপাশ জুড়ে বিভিন্ন জাতের আম গাছ রয়েছে। মুকুল আসার শুরুতে তিনি বিভিন্ন পোকার আক্রমণ থেকে বাচাঁর জন্য ওষুধ ছিটিয়ে থাকেন। এতে ফলন অনেক ভালো পাওয়া যায়। তারা আরো জানান, ক্ষতিকারক পোকার আক্রমণ কম থাকায় এবার কাঙ্খিত ফলনের আশা করছেন আম চাষিরা। সুবিধাভোগীদের সুফল দেখে চাষিরা আম চাষে উৎসাহিত হয়ে নিজ নিজ উদ্যোগে নতুন নতুন বাগান করছেন।

আরো খবর: