বয়ঃসন্ধিকালে শিশুদের ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা

বয়ঃসন্ধিকালে শিশুদের ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা

মেহেদী হাসান(১৭)  আজ আমরা জানবো বয়ঃসন্ধিকালে শিশুদের ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা সম্পর্কে। পরিবারের নিরাপদ পরিবেশে শিশু-কিশোররা সুস্থভাবে বেড়ে ওঠে। এজন্য তাদের পুষ্টিকর ও সাস্থ্যসম্মত খাবার প্রয়োজন । শিশু-কিশোরদের নিরাপদ পরিবেশে গড়ে  তোলার জন্য মা-বাবাসহ পরিবারে সকল সদস্যদের সহযোগিতা প্রয়োজন ।  এ সময় শিশুরা আদর,ভালোবাসায় মধ্যদিয়ে বড় হয়। কিন্তু অনেক পরিবার শিশুদের সাথে খারাপ আচরন,যেমন: বকাঝকা ,মারপিট,গালাগালি করে থাকে। শিশুরা ভয়ে এ ধরনের শারীরিক-মানসিক নিপীরনের কথা কাওকে বলেত পারেনা ।কোন কোন সময় শিশুরা আবান যৌন নির্যাতনের শিকার হয় । শিশুশ্রমে নিয়োজিতদের বেলায় এটা দেখা যায়। বাল্যবিবাহ কিশোরিদের ব্যাক্তিগত নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বড় বাধা । বাল্যবিবাহ কারনে একটি আনন্দ উচ্ছল কিশোরীর সকল স্বপ্ন ভেঙে যায়। সে শারীরিক ,মানসিক ও সামাজিক নিপীড়নের শিকার হয় । ব্যাক্তিগত নিরাপত্তা বিঘ্ন ঘটলে শিশুরা আতংক থাকে এবং তাদের জীবন যাপন করা ক্ষতিগস্ত হয় । শিশুর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বিঘ্নকারী এসব নিপীড়ন থেকে রক্ষা পেতে হলে শিশুর মা-বাবা বা আভিবাবকদের এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। তারা যেমন শিশুদের নির্যাতন করবে না .অন্যদেরও নির্যাতন থেকে তাদের কে রক্ষা করবে।

এসবি-শিশু স্বাস্থ্য/ ৮ আগষ্ঠ ২০১৬

আরো খবর: