ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সামনে রাস্তার পাশে ড্রেনে নষ্ট বাচ্চা

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সামনে রাস্তার পাশে ড্রেনে নষ্ট বাচ্চা

মেহেদী:ময়মনসিংহ-  বিশ্বে গর্ভপাতের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। মায়ের জীবনহানির আশঙ্কা, অসুস্থ বা বড় ধরনের ত্রুটিযুক্ত গর্ভস্থ শিশু ও চিকিৎসাগত নানা সঙ্গত কারণে যেসব গর্ভপাত ঘটছে তা আমাদের আলোচনার বিষয় নয়। কিন্তু পাশ্চাত্যে গর্ভবতী মায়ের স্বাস্থ্য বা জীবন-হানির কোনো আশঙ্কা না থাকা সত্ত্বেও গর্ভস্থ সুস্থ শিশুর জীবন নাশ করা হচ্ছে ব্যাপক মাত্রায়। এই অবিচারের সাফাই দেয়ার জন্য তারা ব্যবহার করছে “নারী তার নিজ দেহের মালিক”- শীর্ষক প্রতারণামূলক শ্লোগানটি। বিষয়টি কথিত পশ্চিমা সভ্যতার নৈতিক অধঃপতন ও যৌন অনাচারের অন্যতম উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। যে কোনো পদ্ধতিতে গর্ভস্থ শিশুকে গর্ভের ভেতরেই মেরে ফেলা খুবই আমানবিক ও নৃশংস কাজ। এ কাজ মানুষের সহজাত প্রকৃতির বিরোধী।তেমন ই ঘটেছে ময়মনসিংহে ,গত ০২/০৪/২০১৭ রবিবার বেলা ৩ টার সময় ময়মনসিংহে মেডিকেল কলেজের সামনে রাস্তার পাশে ড্রেনে এমন তিনটি শিশু দেখা যায়। কেমন মা এরা যে গর্ভপাতের আগেই  গর্ভস্থ শিশুকে গর্ভের ভেতরেই মেরে ফেলে??? এ বিষয়ে হাসপাতাল ঔ ক্লিনিক গুলোতে প্রশাষনের নজর দারী করা বিশেষ ভাবে ধরকার।মানুষ হত্যা করা যেমন অপরাধ তেমনি গর্ভের ভেতরেই বাচ্চা হত্যা করাও সমান অপরাধ।

এসবি-সারাদেশ/৪ এপ্রিল ২০১৭/মেহেদী

আরো খবর: