সর্বশেষ:

প্রকল্প সমাপনী এবং যৌন হয়রানি নির্মূলে করণীয় বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

প্রকল্প সমাপনী এবং যৌন হয়রানি নির্মূলে করণীয় বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

আনিস মিয়া

আজ ২২ নভেম্বর সকাল ১০.০০ টায় পৌরসভা মিলনায়তন, ময়মনসিংহ, ব্র্যাকের জেন্ডার জাস্টিস অ্যান্ড ডাইভারসিটি কর্মসূচির মেয়েদের জন্য নিরাপদ নাগরিকত্ব-মেজনিনের উদ্যোগে যৌন হয়রানি নির্মূলকরণে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন গতিশীল ও জোরদার রাখার লক্ষ্যে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কমিউনিটি ও নেটওয়ার্ক সদস্য এবং সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার মূল উদ্দেশ্য ছিল নারী ও শিশুর প্রতি নির্যাতন ও যৌন হয়রানি বন্ধে একটি টেকসই সামাজিক আন্দোলন চলমান রাখা এবং মেজনিন কর্মসূচির শিখণসমূহ ব্যবহারিক জীবনে প্রয়োগ সংক্রান্ত কর্মকৌশল সম্পর্কে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, কমিউনিটি ওয়াচ গ্রুপ, নেটওয়ার্ক সদস্য ও সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দের স্ব স্ব স্থানে ভূমিকা/করণীয় চিহ্নিতকরণ।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনায় জনাব, মিতু দেবনাথ, সিনিয়র সেক্টর স্পেসালিস্ট, মেজনিন কর্মসূচি, জিজেডি- ব্র্যাক, বলেন- নারী নির্যাতনের একটি বড় হাতিয়ার হচ্ছে যৌন হয়রানি। যৌন হয়রানির মাধ্যমে নারীর মৌলিক মানবাধিকার যেমন-চলাফেরার অধিকার, শিক্ষার অধিকার সর্বোপরি বেঁচে থাকার অধিকার ক্ষুণœ হয় যা সংবিধানের ২৮(২) অনুচ্ছেদের পরিপন্থী। শুধু শিক্ষাক্ষেত্রে নয়, প্রতিটি ক্ষেত্রে মেয়েরা যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মেয়েদের আসা-যাওয়ার পথে যৌন হয়রানি বন্ধে সচেতনতা ও চিন্তা-চেতনার পরিবর্তন করতে হবে। সমাজ থেকে এই ব্যাধি নির্মূলকরণে মেয়েদের প্রতি দৃষ্টিভঙ্গীর পরিবর্তন করতে হবে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি বিরোধী কমিটি গঠন করা হয়েছে। যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে প্রচারাভিযান আরো জোরদার করে গণ-জাগরণ তৈরি করতে হবে।

যৌন হয়রানি নির্মূলে সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে পৌরসভা মিলনায়তন, ময়মনসিংহ আজ ২২ নভেম্বর ২০১৭ ব্র্যাক আয়োজিত যৌন হয়রানি নির্র্মূলকরণে মেয়েদের জন্য নিরাপদ নাগরিকত্ব-মেজনিন কর্মসূচির মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্মানিত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আই সি টি জনাব মো:বেনায়েত হোসেন.এসব বক্তব্য তিনি বলেন পারিবারিক শিক্ষা ও প্রাথমিক সুশিক্ষা একজন মানুষকে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্ব পূণ ভূমিকা পালন করে। শিক্ষার্থীদের বেশী করে বই পড়ার অভ্যাস তৈরী করতে হবে। যে কোন সহিংসতায় পুলিশ প্রশাসনের পাশা-পাশি সমাজের সকলকে ঐক্য বদ্ধ ভাবে সচেতনতার মাধ্যমে প্রতিরোধ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ময়নসিংহ জনাবা জয়িতা শিলা তিনি বলেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে নীতি ও নৈতিকতা সম্পর্কে জানতে হবে। সহপাঠি কে ছেলে-মেয়ে হিসেবে নয় বন্ধু হিসেবে দেখতে হবে।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ও সার্বিক সহযোগিতায় জুনিয়র সেক্টর স্পেসালিস্ট, মেজনিন কর্মসূচি, জিজেডি- ব্র্যাক, নাজমা ইয়াছমিন ও আননিসা খানম।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জনাব, কাজী সাহানা আক্তার, সিনিয়র সেক্টর স্পেসালিস্ট, মেজনিন কর্মসূচি, জিজেডি- ব্র্যাক।

মতবিনিময় সভায় ময়মনসিংহ সদরের বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কমিউনিটির সদস্য, অভিভাবক ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর: